শেষ ব্লগ গুলি

ব্লগিং থেকে ইনকাম করার ৫টি সহজ উপায়? love my study

ব্লগিং থেকে ইনকাম করার ৫টি সহজ উপায়?

ব্লগিং থেকে ইনকাম করার ৫টি সহজ উপায়?

ব্লগিং করে ইনকাম কিভাবে করে থাকে, এ বিষয় অনেকের জানার খুব ইচ্ছে আর তাদের জন্য আমার এ ব্লগটি আপনি যদি ব্লগিং করার জন্য বা ব্লগিং করে ইনকাম কিভাবে করে জানতে ইন্টারেস্টেড হোন তাহলে এই লিখাটি আপনার জন্য।

১। স্পন্সর থেকে ইনকাম?

ব্লগিং করে ইনকাম করার সব চাইতে সহজ উপায় হচ্ছে স্পন্সর থেকে। আপনি যদি ভালো ব্লগার হোন বা আপনার ব্লগিং ওয়েবসাইট এ যদি ভালো পরিমাণ কনটেন্ট থাকে আর যদি নিয়মিত আপনার সাইটে ভালো পরিমান ভিজিটর আসে। তাহলে আপনি খুব সহজে আপনার সাইটের জন্য বিভিন্ন কোম্পানি বা ওয়েবসাইট থেকে স্পন্সার পাবেন। আপনার ব্লগিং সাইট যদি গুগলে রেঙ্ক করে বিভিন্ন কোম্পানি আপনাকে খুজে নিবে তাদের পণ্যের স্পন্সর হিসেবে। এবং এ উপায়টি সবচাইতে ভালো উপায় ব্লগিং থেকে ভালো পরিমাণে ইনকাম করার। যদি আপনি একটি ওয়েবসাইট গুগলের ফাস্ট পেজে নিয়ে আসতে পারেন বা রেঙ্ক করতে পারেন বিশ্বাস করেন আপনি অনেক ভালো প্রফিট পাবেন সুধু স্পন্সার থেকে যা অনেক বেশি। এবং কি আপনি চাইলে আপনার ক্যারিয়ার হিসেবে ও এখানে আপনার অভস্থান তৈরি করতে পারেন ব্লগিং করে।

২। প্রোডাক্ট রিভিউ থেকে ইনকাম?

ব্লগিং করে ইনকাম করার উপায় গুলোর মধ্যে আমি ২য় অবস্থানে প্রোডাক্ট রিভিউ থেকে ইনকাম এ উপায় কে রাখতেছি। যার কারণ যদি আপনি যদি ভালো প্রোডাক্ট রিভিউ করতে পারেন তাহলে আপনার ইনকাম নয় সুধু আপনি এ সেক্টরে অনেক ভালো চাকুরি ও করতে পারবেন। আর আপনি যত ভালো জানবেন প্রোডাক্ট রিভিউ করতে তত বেশি সুযোগ আসবে আপনার কাছে নিজের ক্যারিয়ার দার করানোর। আপনি প্রোডাক্ট রিভিউ করে ২ ভাগে ইনকাম করতে পারবেন সেটাও বলবো নিছে। তার আগে বলি যদি আপনি ব্লগিং করতে চান তাহলে নিশ বা আপনার ক্যাটাগরি বাঁচাই করার আগে একবার প্রোডাক্ট রিভিউ সম্পর্কে জানুন দেখুন এ সেক্টর আপনার ভালো লাগে কিনা। বর্তমানে বাংলাদেশে ও প্রোডাক্ট রিভিউ সম্পর্কিত অনেক জব সার্কুলার হচ্ছে। কেমন হয় আপনি একটি চাকুরি করতেছেন পাশাপাসি সে বিষয় ব্লগিং ও করতেছেন একবার চিন্তা করে দেখুন। তাই আমি বলবো যদি আপনি ব্লগিং সেক্টরে আসেন আগে এ সেক্টরটি দেখুন এখানে আপনি অনেক কিছু শিখতে পারবেন এবং সুধু তাই না আপনি এখান থেকে ও ভালো একটা ইনকাম করতে পারবেন।

৩। অ্যাফিলিয়েট করে ইনকাম?

অ্যাফিলিয়েট এ শব্দের কথা অনেকে সুনেছেন বা আপনি জানেন অ্যাফিলিয়েট কি। তবে আপনি জানেন অ্যাফিলিয়েট বিষয়টি ওতপ্রোতভাবে জড়িত ব্লগিং এর সাথে। একটি আরেকটি চাড়া চলেনা। যদি আপনি ব্লগিং করতে চান অ্যাফিলিয়েট না জানলে ও চলবে। তবে যদি আপনি অ্যাফিলিয়েট করতে জান আপনাকে ব্লগিং সম্পর্কে জানতে হবে। যদি আপনি নতুন হোন তাহলে সুনন বর্তমানে ফ্রিলান্সিং সেক্টরে সবচাইতে জনফ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ সেক্টরে আপনি চাইলে সবচাইতে বেশি মানি ইনকাম করতে পারবেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন। এবার আসি আপনি কিভাবে অ্যাফিলিয়েট ব্লগিং করে ইনকাম করবেন ইতি মধ্যে আপনি হয়তো জেনে গেছেন অ্যাফিলিয়েট কি। আপনি যখন কোন একটি পণ্যের অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক শেয়ার করবেন বিক্রি করার জন্য তখন সে পণ্য সম্পর্কে আপনাকে বিস্তারিত লিখতে হবে আর তা কোন একটি ওয়েবসাইটে লিখবেন আর এ বিস্তারিত যা লিখবেন তা থেকে আপনার ইনকাম হবে। এবার নিচ্ছয় বুঝেছেন অ্যাফিলিয়েট ব্লগিং করে ইনকাম করতে হয়। না বুঝলে অ্যাফিলিয়েট সম্পর্কে জানুন এতে করে এ ট্রফিক টা ও সহজে বুঝতে পারবেন।

৪। নিজের পণ্য বিক্রি করে ইনকাম?

অনেকে বলবেন ব্লগিং করবো আবার নিজের পণ্য করে এটা আবার কিভাবে। ধরেন আপনার কাছে কিছু পণ্য বা প্রোডাক্ট আছে যা আপনি অন্যভাবে সেল করে থাকেন। এখন আপনি করলেন কি সে পণ্য সম্পর্কে সুন্দর একটি রিভিউ লিখে পেল্লেন আপনার ওয়েবসাইটে আর তা প্রচার করতে লাগলেন এরপর সেখান থেকে আপনার পণ্য টাই অনলাইনে সেল হতে থাকলো আর এখান থেকে আপনি ইনকাম করলেন। আবার আপনার কাছে পণ্য নেই আপনি করলেন কি আপনার আসে পাসে কোন বন্ধুর দোকান আছে বা আপনি একটি দোকানে দেখেলেন কিছু কোয়ালিটি পণ্য রয়েছে আর আপনি জানেন তা চাইলে আপনি অনলাইনে ও সেল করতে পারবেন। তখন আপনি সে পণ্যের রিভিউ করে পেল্লেন এছাড়াও ধরেন আপনি অন্য একটি ট্রপিক নিয়ে ব্লগ লিখেন আপনার ওয়েবসাইটে নিয়মিত ভালো ভিজিটর আসে আবার আপনার কাছে কোন একটি পণ্য আছে যেমন ধরেন আপনার কাছে খাটি মধু আছে আর আপনি তা সেল দিবেন। তখন আপনি আপনার ব্লগ সাইটের নির্দিষ্ট একটি যায়গায় সে পণ্যটির সুন্দর একটি এড দিলেন আর তা আপানার ভিজিটর রা দেখলো এবং কিনে নিল এতে করে আপনার নিজের পণ্য বিক্রি করে ও ব্লগ থেকে ইনকাম করতে পারেন।

৫। Adsense বা এড দিয়ে ইনকাম?

উপরে ৪টি উপায় দিয়ে ও যদি আপনি ইনকাম করে থাকেন বা যদি করার ইচ্ছা থাকে তাহলে তো ভালো। তবে তার পাশাপাশি আপনি চাইলে Adsense বা আপনার ওয়েবসাইটে এড বসিয়ে ও ইনকাম করতে পারেন। ব্লগিং করে কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়া সব চাইতে সহজ উপায়ে এবং সব চাইতে বেশি পরিমান ইনকাম করতে পারবেন এই Adsense থেকে। বেশিরভাগ ব্লগার রাই Adsense থেকে ইনকাম করে থাকে এবং আমি ও Adsense থেকে ইনকাম করে থাকি। আপনি যদি কোন একটি বিষয় নিয়ে ব্লগিং করে থাকেন বা করার ইচ্ছা যদি আপনার থাকে আপনি করতে পারেন তবে যা নিয়ে কাজ করুন না কেনো সব কিছুর পাশাপাশি Adsense ব্যবহার করে ইনকাম করা যায়। অথবা সুদু Adsense এর এড দিয়ে ইনকাম করা যায়। এখান থেকে ও আপনি ভালো একটি ইনকাম করতে পারবেন।

আশা করি আপনি বুঝতে পারছেন ব্লগিং করে কিভাবে ইনকাম করে। এছাড়া আরো অনেক উপায় ব্লগিং থেকে ইনকাম করা যায়, সেগুলো জানবেন তবে আপনাকে সুরু করার জন্য এতটুকু জানলে আপনার জন্য যথেষ্ট বলে আমি মনে করি। যদি নির্দিষ্ট এক ২ টি ট্রপিক নিয়ে সুরু করেন এতে ভালো হবে। সুরুতে যদি আপনি একসাথে অনেক গুলো বিষয় নিয়ে সুরু করেন এতে করে আপনি বেশিদুর এগোতে পারবেন না মাঝ পথে আটকিয়ে যাবেন তাই আগে সুরু করুন নির্দিষ্ট ট্রপিক দিয়ে। এতে করে আসা করি আপনি সহজে এগোতে পারবেন ব্লগিং করে। ধন্যবাদ, আপনাকে কষ্ট করে আমার লেখাটি পড়ার জন্য।



ব্লগিং থেকে ইনকাম, Google থেকে টাকা ইনকাম, ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায, বাংলা ব্লগিং সাইট থেকে ইনকাম, ব্লগিং করে টাকা ইনকাম, কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো

কোন মন্তব্য নেই

ধন্যবাদ আপনাকে কমেন্ট করার জন্য শিগ্রই আপনার কমেন্ট এর উত্তর জানিয়ে দেওয়া হবে।