শেষ ব্লগ গুলি

যে কাজগুলি আপনার ক্যারিয়ারকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। lovemystudy.com

ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হওয়ার কারণ

যে সকল কাজগুলি আপনার ক্যারিয়ারকে বাধাগ্রস্ত করে।

১। সহকর্মীদের সাথে সহনশীলতা ।

ক্যারিয়ার উন্নতি না হওয়ার কারণ এর মধ্যে সব চাইতে বড় কারণ। আপনার সহকর্মীদের সাথে সহনশীলতা ও সহমর্মিতার অভাব: সহকর্মীদের সাথে সব সময় মার্জিত ও নমনীয় ভদ্র ব্যবহার করুন। তাদেরকে ভালোবাসুন ও সম্মান করুন এবং তাদের কাজকে ও সম্মান করুন। তাদের প্রতি সহনশীল নমনীয় হউন।।।

আপনি কি সিভি নিয়ে চিন্তিত ভালো কোন সিভি ফরম্যেট পাচ্ছেন না তাহলে এখানে ক্লিক করুন ।

২। রাজনৈতিক আলাপ আলোচনা।

রাজনৈতিক আলাপ আলোচনা, বিভিন্ন ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি। অফিসে রাজনৈতিক আলাপ ধর্মীয় বেপার নিয়ে সুদু সুদু আলোচনা পর্যালোচনা ও বাড়াবাড়ি না করাই উত্তম। এতে করে আপনি নিজের অজান্তেই অনেকের কাছে অপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেন বা আপানার কাছে ও কেউ না কেউ অপ্রিয় হয়ে যাবে। তাই এসব অভ্যাস দুর করুন।

৩। ব্যক্তিগত সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করা।

ব্যক্তিগত সুযোগ-সুবিধা অধিক গ্রহণ করা। আপনার সহকর্মী বা অন্য কারও কাছ থেকে অনৈতিক বা অন্যায়কৃত বা যেকোন দরনের সুযোগ সুবিধা নেওয়া, টাকা বা দরকারী জিনিস ধাঁর নেওয়া। এসব আপনার ক্যারিয়ারকে আপনার অজান্তেই নষ্ট করে দিতে পারে আপনি বুজতেও পারবেন না।

৪। অহংকারী ও বদমেজাজী হওয়া।

আমাদের সমাজে অহংকারী ও বদমেজাজী মানুষ গুলো কে কেউই পছন্দ করে না। নিজের চেহারা, মেধা, পরিবার, পোষাক, ডিগ্রী, রেজাল্ট, বংশ, সম্পদ নিয়ে অহংকার করা খুবই নিন্দনীয় ও খারপ কাজ। সবার সাথে উদ্ধত ও অসৌজন্য মূলক ভালো আচরণ অবশ্যই বর্জনীয়। তাই যদি আপনার এইরুকুম অহংকার ও বদমেজাজ থেকে থাকে আজই ছুড়ে পেলুন সকল অহংকার কে।

৫। খেয়াল-খুশি মত কাজ করা।

ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হওয়ার বড়ো একটি কারণ নিজের ইচ্ছায় বা খেয়াল-খুশি মত কাজ করা। অফিসে নিজের ইচ্ছেমত কাজ করা হেঁয়ালি করা, কাজ কে ফাঁকি দেওয়া। এসব কিছু করা আপনার ক্যারিয়ারে বিপদ ডেকে আনবে বা ক্যারিয়ার ধ্বংসের কারণ হতে পারে। কাজের প্রতি কখনও অবহেলা ও তাচ্ছিল্য করবেন না এসব করা ঠিক নয়।

৬। চাটুকারিতা করা।

ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হওয়ার আরেকটি কারণ মোসাহেবী বা চাটুকারিতা করা। অফিসে বসে চাটুকারিতা করা, অন্যকে হেয় করা, প্রকাশ্যে কাউকে বকাঝকা করা, কটুক্তি করা, ব্যঙ্গ উক্তি করা অন্যকে ইন্সাল্ট মুলক কথা বলা। আপনার ভালো ক্যারিয়ার গঠনে বড় বাঁধা।

৭। নিজ অভিজ্ঞতা।

ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হওয়ার আরেকটি কারণ আগের কোম্পানী এবং নিজ অভিজ্ঞতা নিয়ে সব সময় বাড়াবাড়ি করা। সব সময় আপনার আগের কোম্পানীর উদাহরণ দেওয়া, সুনাম করা বা দুর্নাম করা বা আপনার অভিজ্ঞতা নিয়ে বেশী কথা বলা বা বাড়াবাড়ি করা আপনার ক্যারিয়ারের জন্য খারাপ হতে পারে বা ক্যারিয়ারকে বাধাগ্রস্ত করে।

৮। ব্যক্তিগত বিষয়।

ব্যক্তিগত বিষয় বা পারিবারিক জীবন নিয়ে কথা বলা। আমরা প্রায় বেশিরভাগ মানুষ এ ব্যক্তিগত বিষয় বা পারিবারিক সমস্যা গুলি নিয়ে অফিসে আলোচনা করে থাকি। এটা করবেন না এতে করে আপনার দুর্বলতা অন্যের কাছে প্রকাশ হবে। একটা সময় এগুলোর জন্য আপনাকে সবার কাছে উপহাস বা হালকা ব্যক্তিত্বের মানুষ হিসাবে পরিচিত করবে।

৯। অসন্তাষ প্রকাশ।

আরেকটি কারণ নিজের অসন্তাষ প্রকাশ্যে না বলা। নিজের বেতন, পজিশন, ক্যারিয়ারে পদোন্নতি বা যে কোন অসন্তোষ বিষয় গুলো প্রকাশ্যে না বলে আপনার বসের সাথে বা যথাযথ কতৃর্পক্ষের সাথে কথা বলে ভালো ভাবে সমাধান করা অধিক শ্রেয় ও বুদ্ধিমানের ব্যাক্তির কাজ।

১০। কৌতূহলী হওয়া।

অতিরিক্ত কৌতূহলী হওয়া, কৌতুক বা ঠাট্টা-মশকরা করা। অন্যের ব্যক্তিগত ব্যাপারে কখনই কৌতূহলী বা নাক না গলানোই হবে বুদ্ধিমানের কাজ। বস বা সহকর্মীদের মেজাজ বুঝে তারপর নিজস্ব আচরণের মাপকাঠি তৈরী করাই উত্তম এটা ভালো ক্যারিয়ার এর একটি উধাহরণ।

১১। ভিলেন হওয়া।

অফিস ভিলেন হওয়া বা ভিলেন স্বরূপ আচরণ না করা। অনেকেই ব্যক্তি স্বার্থে বা নিজ স্বার্থ রক্ষারতে আপনাকে ভিলেন হিসাবে ব্যবহার করতে পারে। কাউকে ল্যাং মেরে নিজে উপরে বা অন্যের ক্ষতি করে উপরে উঠা বা ভালো থাকা নৈতিকতা ও ভবিষ্যত ক্যারিয়ারের জন্য খুবই খারাপ হবে এতে করে ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হবে।

ক্যারিয়ার সম্পর্কে আরো ভালো কিছু টিপস পেতে এখানে ক্লিক করুন
কিভাবে সিভি সঠিক নিয়মে ইমেইল করে চাকুরির আবেদন করতে হয় তা জানতে এখানে ক্লিক করুন

১২। সবজান্তার ভাব করা।

খেয়াল করলে দেখতে পারবেন প্রায় প্রতিটি জায়গায় এইরুকুম একজন ব্যাক্তি থাকে যে সব জানে যে কোন বিষয় কথা বলে উঠবে। অর্থাৎ যাকে বলে সব্জান্তা। আপনিই সব কিছু জানেন, বোঝেন, করেন-এ ধরনের মনোভাব আপনার ক্যারিয়ার নষ্ট করে দিতে পারে অল্প সময়ের মধ্যে সুদু তাই নয় অন্যের সাথে আপনার ভালো সম্পর্ক টি ও আস্তে আস্তে নষ্ট হয়ে যাবে।

১৩। সুযোগ সুবিধা খোঁজা।

সব সময় নতুন সুযোগ সুবিধা খোঁজা এবং তা সকলের কাছে প্রকাশ করা। এ ধরনের কাজ কখনই করবেন না এতে করে আপনাকে কতৃর্পক্ষের নিকট আপনি আপনার ক্যারিয়ারে অবিশ্বাসী ও অমনোযোগী কর্মী হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হবেন যাতে করে সুযোগ সুবিধা পাওয়ার চেয়ে যা আছে সেটা ও হারিয়ে যাবে।

১৪। অন্যের সফলতায় বাঁধা হওয়া।

অন্যের উন্নতিতে সফল হতে আপনি বাঁধা হওয়া। আপনি যদি অন্যের ক্যারিয়ারের সফলতায় বা উন্নতিতে বাঁধা হোন তাতে করে সুদু তার ক্ষতি নয় সে সাথে কোম্পানির ও আপনার ও ক্ষতি হবে তা আপনি বুঝতেও পারবেন না। যদি আপনি অন্যের উন্নতিতে বাঁধা হো তা হলে কোম্পানীর সামষ্টিক প্রবৃদ্ধি নষ্ট হয়ে যায়।

১৫। প্রতিদ্বন্দ্বীতা করা।

নিজেকে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে জাহির বা প্রকাশ করা। নিজেকে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে প্রকাশ না করে সব সময় চেস্টা করবেন নিজের সেরাটা দেবার চেষ্টা করবেন কোম্পানির উন্নয়নে নিজের ভূমিকা রাখার এটা আপনার ক্যারিয়ারের জন্য খুবই ভালো।



CV নিয়ে সকল প্রশ্নের উত্তর একসাথে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

এই লেখাটা লেখার ধারণা পেয়েছি। মো: তবিবুর রহমান স্যার এর কাজ থেকে ওনার লিংকডিন প্রফাইল থেকে আইডিয়া টি কপি করে নেওয়া। স্যার এর প্রফাইল লিঙ্ক

কোন মন্তব্য নেই

ধন্যবাদ আপনাকে কমেন্ট করার জন্য শিগ্রই আপনার কমেন্ট এর উত্তর জানিয়ে দেওয়া হবে।