শেষ ব্লগ গুলি

CV লেখার সময় আমরা যেসব ভুল করে থাকি। lovemystudy.com

CV লেখার সময় কিছু কমন মিস্টেক বা যে ভুল করে থাকি।

CV লেখার সময় আমরা যেসব ভুল করে থাকি। lovemystudy.com
CV তে কিছু ভুল বা কিছু কমন মিস্টেক থাকার কারণে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়ে যায় যা আমরা বুঝতে পারিনা। আমরা অনেক চাকুরিতে আবেদন করে থাকি কিন্তু বেশিরভাগ কোম্পানিতে আমাদের কে ভাইবার জন্য ডাকেনা তার কারণ কি জানেন। আমরা মনে করে থাকি হয়তো আমাদের ভালো রেফারেন্স না থাকার জন্য আমাদের চাকরি টা হচ্ছেনা আসলে বিষয়টি তা না আমাদের কিছু কমন মিস্টেক এর কারনে এ সমস্যাটা হয়। তাই আজকে জানবো কি সেই কমন মিস্টেক বা ভুল গুলো।

চাকরির আবেদন করার সময় ইমেইলে CV পাঠানোর ৭টি নিয়ম|

১। CV কপি?

CV লেখার ক্ষেত্রে প্রথম ভুল হচ্ছে CV কপি করা বা অন্য জনের CV কে কপি করে নিজের বলে চালিয়ে দেওয়া। আমরা প্রায় বেশির ভাগ মানুষেই এমন করে থাকি যার ফলে আমাদের কিছু সমস্যার সৃষ্টি হয়। ধরেন আপনি আপনার ভার্সিটির কোন এক বড় ভাইয়ের CV টি দেখে ঠিক সে রুকুম ভাবে আপনার CV টি তৈরি করে নিলেন। বা আপনার কাছের এক ব্রিলিয়ান্ট বন্ধুর CV টি দেখে তার মত করে আপনার CV টি তৈরি করে নিলেন। আর এখানে আপনি প্রথম ভুলটি করে পেল্লেন আপনার CV বানানোর ক্ষেত্রে। একবার চিন্তা করে দেখুন তো আপনার সাথে আপনার সে বড়ো ভাই আপানার সে বন্ধুর যোগ্যতা, তাদের ক্যরিয়ার প্লান কি এক। তারা তাদের সকল বিষয় গুলো বিবেচনা করে তাদের CV টি সাজিয়েছে। কিন্তু আপনি তা না করে তাদের মতো করে CV বানিয়ে পেল্লেন কিন্তু আপনার ক্যারিয়ার অবজেক্টিভ কিন্তু এক না। এতে করে আপনি যেভাবে ভুল করতেছেন সেভাবে কিছু মিস করতেছেন সিভি লেখার ক্ষেত্রে। একটি CV তে কিন্তু অনেক গুলো পয়েন্ট থাকে কিন্তু সব পয়েন্ট সবাই ব্যবহার করতে পারেনা কারো কিছু বেশি থাকে আবার কারো কিছু কম থাকে। আপনি যদি অন্য কারো CV নকল করে বানাতে জান এতে আপনার যদি কোনো এক্সট্রা কোয়ালিফিকেশন থাকে বা এচিভমেন্ট থাকে তা আপনি উল্লেখ করতে পারবেন না আবার যদি আপনার কোনো এচিভমেন্ট না থাকে তখন আপনি কি করবেন হয়তো অন্যের এচিভমেন্ট এর মতো করে একটা লিখে দিলেন বা এরিয়ে যাবেন তবে এতে করে আপনার সিভির সৌন্দর্য নষ্ট হবে আপনি সব পয়েন্ট দিতে পারবেন না আবার কিছু পয়েন্ট মিস্টেক হয়ে যাবে তাই নিজের সিভিটি নিজের মতো করে সাজিয়ে নিন কাউকে নকল না করে তবে এ ক্ষেত্রে CV ফরম্যাট কপি করতে পারবেন তবে CV এর বিষয়বস্তু গুলো নয়। তাই নিজের যে যোগ্যতা আছে তা দিয়ে CV তৈরি করুন দেখবেন তা অনেক সুন্দর হবে।

২। ব্যাকরণ ভুল?

CV লেখার সময় আমরা সব চাইতে যে বড় ভুল করে থাকি তা হলো ব্যাকরণ ভুল আর এটা আমাদের জন্য সব চাইতে লজ্জাজনক। খেয়াল রাখবেন CV লেখার সময় যেন কোন ভাবে এই ধরনের ভুল কখনো না হয়। যদি CV তে আপনার ব্যাকরণ ভুল থাকে চাকুরিদাতা বুঝে নিবে আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা কত টুকু বা আপনার ইংলিশ এ দক্ষতা কেমন তাই এ ভুল এরিয়ে চলুন।

৩। CV অ্যালাইনমেন্ট?

অনেকে CV কে সুন্দর ভাবে সাজানোর জন্য বা কিছু ডিজাইন করার জন্য এলোমেলো করে CV লিখে থাকে তার মাঝে উল্লেখযোগ্য হলো CV অ্যালাইনমেন্ট। কেউ কেউ এসব ডিজাইন করতে গিয়ে CV অ্যালাইনমেন্ট মধ্যখানে রাখে আবার কেউ ডান দিকে রাখে। এসব করবেন না যেমন ডিজাইন করুন না কেনো সব সময় CV অ্যালাইনমেন্ট যেন বাম দিক থেকে হয় সে দিকে নজর দিবেন।

৪। CV রেফারেন্স?

অনেকে বলে ভাইয়া আমার তো কোন রেফারেন্স নাই আমি রেফারেন্স এ কি দিবো। রেফারেন্স কি দিবো না দিবোনা। আপনি যেহেতু একটি CV বানাতে যাচ্ছেন আমি ধরে নিচ্ছি আপনি কোন না কোন একটি কলেজ ভার্সিটি থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে এসেছেন। যদি আপনি কলেজ ভার্সিটি থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে থাকেন তাহলে নিচ্ছয় আপনার কোন এক টিচারর সাথে ভালো সম্পর্ক থাকবে। তা যদি না থাকে আপনি আপনার স্টাডি লাইফে কি কোন একটি সামাজিক সংগঠনের সাথে ও চিলেন না যদি থেকে থাকেন তাহলে অবশ্যই সেখান কার উপরস্থ কারো সাথে আপনার সম্পর্ক রয়েছে যিনি আপনাকে চিনে তাকে রেফারেন্স হিসেবে দিতে পারেন। আপনি যদি আগে কোনো কোম্পানিতে জব করে থাকেন তাহলে নিচ্ছয় সেখান কার কোন এক উপরস্থ বসের সাথে আপনার নিচ্ছয় সম্পর্ক থাকবে যিনি আপনাকে চিনবে তাকে দিতে পারেন। তার পর ও কোন একজন কে আপনি CV তে রেফারেন্স দিবেন।

৫। CV ফটো?

CV তে ফটো দেওয়ার সময় অনেকে সেলফি তুলে তা দিয়ে দেয়। আপনি জানেন আপনার CV এর সৌন্দর্য নষ্ট করার জন্য বা আপনি ভাইবা বোর্ড এ বাদ পড়ার জন্য আপনার এই একটি ভুলই যথেষ্ট। তাই সব সময় খেয়াল রাখবেন সিভিতে ফটো দেওয়ার সময় ফটো যেনো সুন্দর স্মার্ট ও হয়। সহজ করে যদি বলি যেন আপনার ফটো দেখলে যে কেউ আপনাকে ভদ্র মানুষ বলে মনে করে।



৫০ টি CV-সিভি ফরম্যাট ফ্রিতে ডাউনলোড করুন

কোন মন্তব্য নেই

ধন্যবাদ আপনাকে কমেন্ট করার জন্য শিগ্রই আপনার কমেন্ট এর উত্তর জানিয়ে দেওয়া হবে।