শেষ ব্লগ গুলি

ফেসবুক ব্যবহারে ৭টি সতর্কতা। বা ফেসবুক ব্যবহারের নিয়ম।lovemystydy.com

ফেসবুক ব্যবহারে ৭টি সতর্কতা বা নিয়ম কানুন সমুহ।

ফেসবুক ব্যবহারে ৭টি সতর্কতা

আমরা তো সবাই ফেসবুক ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু আমরা কি ফেসবুক ব্যবহারে সতর্কতা সমূহ বা নিয়ম গুলো জানি। কিছু নিয়ম মেনে চললে সুন্দর একটি ফেসবুক একাউন্ট চালাতে পারবো এবং হ্যাকিং থেকে বাঁচতে পারবো জেনে নি ফেসবুক ব্যবহারে ৭টি সতর্কতা।

১। ফেসবুক প্রোফাইল

আজ কাল যে কোন ধরনের মানুষ কে জিজ্ঞেস করেন না কেন ফেসবুক একাউন্ট সকলের আছে, ছোট বড়ো প্রায় সবার একটি ফেসবুক একাউন্ট আছেই খুব কম মানুষ আছেন যাদের ফেসবুক একাউন্ট নাই, বলতে গেলে ফেসবুক পাব্লিকালি হয়ে গেছে আর ফেসবুকের ও তেমন কোনো রুলস নাই ফেসবুক ব্যবহার বয়স সিমা নিয়ে, আর এখানে যতো সমস্যা, একটা প্রবাদ আছে আমরা আজ কাল শিক্ষিত হওয়ার আগে ডিজিটাল হয়ে গেছি। এ কথা প্রায় অনেক শিক্ষিত মানুষের মুখে শুনা যায়। তার কারন আমি আপনি প্রযুক্তি সম্পরকে জানি আর না জানি প্রযুক্তি ব্যবহার কিন্তু সুরু করে দিয়েছি। তেমনি ফেসবুক ব্যবহার করতে না পারলেও ব্যবহার সুরু করে দিয়েছি। তো মূল ট্রপিক এ আসি প্রথমতও বলি রাখি যদি আপনার ফেসবুক একাউন্ট বা প্রোফাইল সুন্দর করে না সাজিয়ে রাখি বা মিনিমাম ৬০% তথ্য সঠিক না রাখি তাহলে যে কোনো সময় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আমাদের একাউন্ট ভ্যান করে দে বা ভেরিফাই খুজে। বিশেষ করে প্রোফাইল পিকচার, সঠিক নাম ও জন্ম তারিখ এ ৩ টি জিনিস আপনাকে সঠিক ভাবে দিতে হবে যদি এখানে ভুল কিছু দেন যে কোনো সময় ফেসবুক একাউন্ট হারাতে পারেন এবং হ্যাকার রা ও খুব সহজে আপনাকে টার্গেট করতে পারে, যদি কারো সাথে বাক্তি গত শত্রুতা থাকে সে ও চাইলে আপনার একাউন্ট ভ্যান করে দিতে পারে।[স্মৃতি শক্তি ধরে রাখার সহজ ১০টি টিপস।]

২। বন্ধু বাঁচাই করুন

কেউ নতুন একাউন্ট করলে সাথে সাথে অনেক গুলো ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট করে বসে থাকেন বা কিছু আইডিতে বিশেষ করে মেয়েদের আইডিতে দিনে শত শত ফ্রেন্ড্র রিকুয়েস্ট আসে আর তা আপনারা গ্রহন ও করে থাকেন এটা করবেন না দিনে সরবোচ্চ ১০ জনের বেশি বন্ধু বানাবেন না। বেশি করলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এর নজরে পরে জাবেন আর একবার নজরে পরলে ফেসবুক চালাই শান্তি পাবেন না বার বার ভেরিফাই চাইবে তারা না করতে পারলে ব্লক খাবেন কর্তৃপক্ষ এর কাছে এবং ফেক আইডি বা যে সকল আইডিতে সঠিক নাম নেই, ভুল বা আজব কিছু নাম, যাদের আইডিতে প্রোফাইল পিকচার নাই বিশেষ করে যে সকল ছেলেদের আইডিতে তাদের প্রোফাইল পিকচার নাই তাদের রিকুয়েস্ট কখনো গ্রহন করবেন না তাদের কে এরিয়ে চলুন।


৩। ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে অ্যাড

আমরা জেনে অথবা না জেনে প্রায় বেশিরভাগ মানুষ বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে অ্যাড হয়ে থাকি যা আমাদের জন্য একটা সময় জটিল হয়ে ধারায় তাই যে কোনো পেজে লাইক দেওয়ার আগে সেই পেজ সম্পরকে জেনে লাইক দিবেন সেম ভাবে গ্রুপে ও জয়েন হওয়ার আগে জেনে জয়েন হবেন এলো মেলো ভাবে ফেসবুক চালাবেন না।


৪। অপরিচিত কারো সাথে চ্যাট

সব সময় একটা জিনিস আমরা করে থাকি নতুন বন্ধু বানানোর ক্ষেত্রে তা হলো অপরিচিত দের সাথে এস এম এস করে আর সেখানে যতো সব সমস্যার সৃষ্টি হয় আমি বলবোনা সব সময় এটা ক্ষতি হয় তবে ৯০% ক্ষতির কারন হয় সুধু অপরিচিত ব্যাক্তিদের সাথে এস এম এস করে কাউকে না চিনলে যেমন বন্ধু বানাবেন না ঠিক তেমনি কারো সাথে কথা ও বলতে যাবেন না কে জানে হয়তো বা আপনি বড়ো কোনো জামেলায় পরবেন না। তাই সচেতন হোন বিশেষ করে মেয়েরা লক্ষ রাখুন এস এম এস করার ক্ষেত্রে।


৫। মেসেঞ্জার লিঙ্ক

আমরা হটাঠ করে দেখি প্রায় সময় কোনো একটি অপরিচিত আইডি থেকে বা কারো সাথে ২ দিন কথা হলো তারা আমাদের কিছু লিঙ্ক শেয়ার করে আমরা তাতে ক্লিক করে থাকি এবং পরবর্তী পর্ব অনুসরণ করে থাকি। আপনি জানেন যে ব্যাক্তি আপনাকে লিঙ্ক দিয়েছে সে যদি সৎ না হয়ে অসৎ বাক্তি হয় এতে আপনার কি ক্ষতি হতে পারে। এতে আপনার ফেসবুক পাসওয়ার্ড সহ সকল তথ্য, মোবাইল ফোনের সকল তথ্য, এবং কি আপনার ফোনের গ্যালারি সহ আপনার ফোনের ক্যামেরা এক্সেস ও নিয়ে যেতে পারে কিছু কিছু সময়তো আপনার পুরো ফোনের এক্সেস নিয়ে নেয় যাতে করে আপনি কখন গুম থেকে উটতেছেন কি করতেছেন সারাদিন মোবাইলে বা সরাসরি কার সাথে কি কথা বলতেছেন সকল তথ্য তারা পেয়ে যায়। একবার ভাবুন তো আপনার সাথে যদি এমন হয় কেমন লাগবে আপনার। তাই এখনি সতর্ক হোন সেভ থাকুন কারো দেওয়া লিঙ্ক এ ক্লিক করবেন না পুরা পুরি না জেনে তবে সবাই আপনাকে অসৎ উদ্ধেশ্যে লিঙ্ক শেয়ার করবেনা কেউ কেউ ভালো কিছু ও শেয়ার করে তা আপনাকে খুজে নিতে হবে।


৬। ফেসবুক দিয়ে অন্য কোন অ্যাপস এ লগিং

আপনারা সব সময় একটা জিনিস দেখতে পান আমরা যখন কিছু অ্যাপস বা সাইটে যাই বা সেগুলো ওপেন করতে যাই আমাদের লগিং বা একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হয় আর তা দেওয়া থাকে ফেসবুকের মাধ্যমে সাবধান এটা করবেন না এই ধরনের অ্যাপস গুলোতে ফেসবুক দিয়ে লগিং করতে গিয়ে বেশিরভাগ মানুষেই তাদের ফেসবুক একাউন্ট হারিয়েছেন আমার দেখা এমন অনেকেই আছেন আমার কিছু কাছের মানুষ ও এমন ভুল করে এসেছেন এমন পদ্ধতি সহজ হ্যাকারদের জন্য মানুষ সহজে বিশ্বাস করে পেলে। তাই সচেতন হোন এমন ভুল করবেন না এই সকল অ্যাপস এ লগিং করার জন্য যদি বিকল্প ব্যবস্তা থাকে তা দিয়ে লগিং করুন ফেসবুক দিয়ে নয়।


৭। ফেসবুক ফিল্টার

ভালো একটি ফেসবুক একাউন্ট চালাতে কার না ভালো লাগে তই প্রতি সপ্তাহে একবার বা সপ্তাহে না পারলে মাসে অন্তত একবার হলেও ফেসবুক ফিল্টার করে নিন এতে করে আপনার অপরিচত বন্ধু, গ্রুপ, পেজ সহ সকল কিছু বাচাই করে ফেসবুক কে সুন্দর করে রাখতে পারবেন আরেকটি কথা চেস্টা করবেন প্রতি ৩-৪ মাসে একবার হলেও ফেসবুক কভার পিকচার চেঞ্জ করতে এবং আপনার সকল তথ্য যেনো না সো থাকে কিছু তথ্য হাইড করে রাখবেন তাতে হ্যাকার দের নজর থেকে একটু হলেও বাঁচতে পারবেন।[চাকরির আবেদন করার সময় ইমেইলে CV পাঠানোর ৭টি নিয়ম|]

ধন্যবাদ এই ব্লগটি পড়ার জন্য যদি ভালো লেগে থাকে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন আমদের ফেসবুকে ফলো করুন এবং আমাদের ওয়েবসাইটে ফলো বাটনে ক্লিক করে ফলো করুন সাবস্ক্রাইব করে রাখুন যাতে সকল নতুন ব্লগের নিউজ সাথে সাথে পেয়ে জান ধন্যবাদ ভালো থাকবেন। ৫০ টি CV-সিভি ফরম্যাট ফ্রিতে ডাউনলোড করুন

কোন মন্তব্য নেই

ধন্যবাদ আপনাকে কমেন্ট করার জন্য শিগ্রই আপনার কমেন্ট এর উত্তর জানিয়ে দেওয়া হবে।